বাড়ি বাংলাদেশ বীরত্বে গাঁথা বীর, মেধায় ভরা শীর

বীরত্বে গাঁথা বীর, মেধায় ভরা শীর

51
0

ইমাউল হক পিপিএম :আমি যখন ষষ্ঠ শ্রেণী র ছাত্র। তখন ই তিনি পুলিশ। তার অধীনে র একজন পুলিশ সদস্য হয়ে পরিচয় দেওয়া গর্বের ।তিনি জাতিসংঘের চিফ মিশন ম্যানেজমেন্ট এন্ড সাপোর্ট সার্ভিসেস’ হিসেবে এক বছর কাজ করেছেন। এটা জানতে পেরেছি মিশনে যেয়ে।মিশন সংশ্লিষ্ট বিশ্বের সকল সদস্য ই তাঁকে চেনেন। বাংলাদেশ পুলিশের অন্য কেউ এত উচ্চ তায় প্রতিনিধিত্ব করেছেন কিনা আমার জানা নেই।তিনি বর্তমান আইজিপি স্যার বেনজীর আহমেদ, বিপিএম(বার)।
যাই হোক পুলিশে প্রবেশ করেই তাঁর personality সম্পর্কে জেনেছি।আকর্ষণীয়। আমার বাহিনী প্রধান জন্য বলছি না অন্য অনেক ই মানবেন।এমনকি বিদেশে র পুলিশদের কাছে ও এমন ধারনা স্পস্ট। এই তো সেদিন মিশনে কাজ করেছি সেই সহকর্মী র সাথে করোনা নিয়ে কথা হল ।আমি যখন বললাম আইজিপি মহোদয়ের পক্ষ থেকে মাস্ক ,পিপিই, জিংক ,সিভিট ইত্যাদি ঔষধ পেয়েছি।সে তো পুরোই আকাশ থেকে পড়ল।সে বলল Who is your cheif of police . নাম বললাম। সংগে সংগে তার চিনতে দেরী হয়নি।তিনিও আইজিপি স্যারের অনেক সাফল্য আমাকে বললেন।আমার তো ভীষন ভাল লাগল।যতটুকু জানি আইজিপি মহোদয় পেশাদারিত্বের বাইরে কোন চিন্তা করেন না। আই জি পি র নিখুঁত ও সুনিপন দেশপ্রেম ও পুলিশের প্রতি দরদ ও আপনত্বের মহত্ত্ব যেন একই চিন্তা প্রতিবেদনের দুইপৃষ্ঠার এপিঠ ও পিঠ।এবার করোনা চিকিত্সা নিয়ে আশা একাধিক সহকর্মী প্রশংসা করেছেন। যা সবাই কে মুগ্ধ করেছে। দেশে হরতাল ধর্ম ঘট , জালাও পোড়াও ,ছাত্র- শ্রমিক আনন্দোল আরও অন্য সংকটে তা বারবার দেখিয়েছেন বর্তমান আইজিপি স্যার। সব নিয়ন্ত্রণ যেন তার মুখস্থ। মরণঘাতক করোনার প্রানহানির থাবা হতে পুলিশ কে বাঁচাতে তাঁর মানবীয় চিন্তা আর পদক্ষেপ পুলিশ বাহিনী কে করেছে সাহসী । একই সাথে বাহিনী দেখল তার অভিভাবক বিভিন্ন ঔষধ ও পিপিই কিনে দিল সবাই কে।আক্রান্ত সদস্য ও পরিবারের খোঁজ নিলেন নিজেই ।নেই কোনো হিংসা বিদ্বেষ ।এই করোনা পুলিশ সদস্যদের যতই আক্রান্ত করুক আর সৈনিক, অফিসার দের মৃত্যু হোক , মাননীয় বেনজীর আহমেদ যেন সিপাহ -সালার ইস্পাত কঠিন ব্যক্তিত্ব ।অভি ভাবকত্বের দায়িত্বে সবার মনের মনি কোঠায় ইতিমধ্যেই। মৃত্যু আল্লাহ্ র হাতে ।বেশ কয়েক জন সহকর্মী করোনা র সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ হয়েছেন। তিনি শোক প্রকাশ করেছেন পাশাপাশি শোক কে শক্তিতে পরিণত করেছে।অল্প সময়ে হাসপাতাল আইসিইউ সব ব্যবস্থা। আর নিজে ই তদারকিতে। মাননীয় আইজিপি দেশকে ও দেশের পুলিশ বাহিনীকে এমন পরিমাপে তুলে ধরেছেন বিদেশী পুলিশ কমান্ডার গন বাংলাদেশ পুলিশের ভূয়সী প্রশংসায়: বিশ্ব নায়ক হিসেবে অভিহিত করেছেন। মানুষ চায় শান্তি, শৃঙ্খলা, প্রগতি ও স্থিতিশীল বাংলাদেশ। হরতাল, ধর্মঘট ,জালাও পোড়া ও , ঘেরাও অগ্নিসংযোগের সিনেমায় ফিরতেও চায় না।
মাননীয় আইজিপি বেনজীর আহমেদ অভিভাবক এর আসনে শুধু কমান্ড দিয়ে নয় , নেতৃত্বগুণেও হয়েছেন অদ্বিতীয়। দেশ এখন করোনা য় উৎকণ্ঠিত। বিশ্বই বিচ্ছিন্ন। বিশ্বের অন্যান্য্য বাহিনীর হাতে যখন লাঠি আর অস্ত্র। তখন তিনি আমাদের দিয়েছেন সেবার মন্ত্র আর নাগরিকদের জন্য খাবারের ব্যাগ হাতে তুলে দিয়েছেন।
কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়েছে চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা। বিশ্বের অনেক বাহিনী কমান্ডার আক্রান্তের ভয়ে দিগ্বিদিকশুন্য,যুদ্ধ জাহাজ থেকে নেমে গেছে বলে শোনা গেছে।
অনেক রাজ্য ঈশ্বর ভাবাপন্ন ব্যক্তিত্ব আকাশেপানে তাকিয়ে থেকেছেন।
আর আমার দেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও কিন্তু নূন্যতম বিচলিত নন।মুহূর্তে মুহূর্তে মনোবল বাড়ানোর চেষ্টা করছেন
জাতির মনোবলকে উচ্চ পর্যায়ে রাখছেন।তাঁর সে দীক্ষায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রধান হয়ে আইজিপি স্যার রাষ্ট্রের সেবা দিচ্ছেন যথাসময়ে যথাসম্ভব দায়িত্ব নিয়ে,দ্বায় নিয়ে। তাঁর নেতৃত্ব আর দিক নির্দেশনা য় পুলিশের ভাল ইমেজ আজ মানুষের মুখে মুখে। বাংলাদেশ পুলিশ দেশের মানুষের কাছে দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত মনে রাখার মনন সত্তায়।যা শুধুই পুলিশ প্রধানের কারুকার্য।
সত্যি তিনি বীরত্বে ভরা বীর,মেধায় ভরা শির তাঁর ।কথায়,কাজে,সার্ভিস লিডার হিসেবে অদ্বিতীয় ।
উচ্চারণে ,বাচনভঙ্গি,ব্যাক্তিত্ব আন্তর্জাতিক মানের ।পাবলিক অর্ডার মানেজমনট আর আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় যথাযথ একজন পুলিশ ব্যক্তিত্ব ,বিশ্বমানের বাহিনী নেতৃত্ব ।যোগ্যতার শীর্ষে থাকা পুলিশের অহংকার ও অলংকার ।শুধু ব্যবস্থাপনা ও জন শৃঙ্খলা নয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়ন্ত্রণে তাঁর জুড়ি নেই।বাংলাদেশ পুলিশ এবং বিশ্ব পুলিশের অন্যতম SMART personnel.তিনি সফল ও যোগ্য পুলিশ প্রধান তো বটেই দেশ রক্ষা ও স্থিতিশীল শৃঙ্খলা স্হাপনে বাহিনী নেতৃত্ব। মানবতার বরপুত্র অভিধা ও তাঁর প্রাপ্য। অতীতে দেশের অলি গলিতে এলোমেলো বিক্ষোভ, ,গ্রানাইট পাথর সদৃশ বিরোধিতার হুঙ্কার, অযথাই আন্দোলন ও তৎকালীন ঢাকা ঘেরাও এর নিয়ন্ত্রণে র উদাহরণ, ধ্বংসযজ্ঞের সম্ভাবনাকে ভন্ডুল করে দিয়েছে। স্থাপিত হয়েছে শান্তি পুর্ন অবস্থা।তাঁর বর্তমান সময়ে পুলিশ পরিচালনা য় প্রমাণ মিলেছে নন্দিত মেধা,ধৈর্য সাহস ,মানবতা ও ব্যক্তিত্বের।
তাঁর দীর্ঘ আয়ু কামনা করছি।অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা আর ভবিষ্যতে র জন্য felicitation,,,,,,
মোঃ ইমাউল হক পিপিএম
ইন্সপেক্টর,
ইন্টেলিজেন্স এন্ড মিডিয়া সেল
14 আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন, কক্সবাজার।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে